নিউজটি পড়া হয়েছে 24

অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা।

সিলনিউন্টুয়েন্টিফোরডটকম ::: মায়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গারা ক্রমশ অসহিঞ্ষু’র পাশাপাশি অপরাধ প্রবণ হয়ে উঠছে। সর্বশেষ গত শুক্রবার মধ্যরাতে উখিয়ার বালুখালীতে বাংলাদেশী শ্রমিকদের ওপর হামলা এবং রামুতে একজনকে জবাই করে হত্যা করেছে রোহিঙ্গারা। তার বাইরে প্রতিদিনই রোহিঙ্গাদের অভ্যন্তরীণ ও স্থানীয়দের সাথে নানা বিরোধের অভিযোগ আসছে কক্সবাজারের থানাগুলোতে। এ অবস্থায় অপরাধে জড়িয়ে পড়া রোহিঙ্গাদের মনিটরিংয়ের কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

অবস্থানের পাশাপাশি বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের সংখ্যা যতোই বাড়ছে ততোই অসহিঞ্ষু হয়ে উঠছে তারা। বিশেষ করে দীর্ঘদিন ধরে বসবাসরত কক্সবাজার জেলার উখিয়া এবং টেকনাফে অপরাধের জন্য রোহিঙ্গাদেরকেই দায়ী করে আসছে স্থানীয়রা।

গত তিন দশক ধরে উখিয়া এবং টেকনাফে চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা অবস্থান করলেও আগস্টের পর থকে বর্তমানে তা ১১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। যা স্থানীয় বাসিন্দাদের তুলনায় তিনগুণ বেশি। এর মাঝে আশ্রয় শিবিরে অবস্থানরত রোহিঙ্গারা নিজেদের মধ্যে প্রতিনিয়ত কলহের সৃষ্টি করছে। পাশাপাশি স্থানীয়দের সাথেও নানা ধরণের বিরোধে জড়িয়ে পড়ছে।

এক্ষেত্রে স্থানীয়দের সাথে বিরোধের অভিযোগের সত্যতা অস্বীকার করলেও নিজেদের মধ্যে নানা ধরণের কলহের কথা স্বীকার করেন আশ্রয় শিবির কেন্দ্রিক রোহিঙ্গা নেতারা। এর আগে ছোট-খাট বিভিন্ন অপরাধের পাশাপাশি গত বছর কক্সবাজারের টেকনাফে আনসার ক্যাম্পে হামলা এবং ২০১২ সালে রামুর বৌদ্ধ মন্দিরে হামলার অভিযোগ রয়েছে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে।

ফেসবুক মন্তব্য
Share Button
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •