নিউজটি পড়া হয়েছে 135

আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর ওপর আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৫০ জন নিহত।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::: আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর ওপর দুটি পৃথক আত্মঘাতী বোমা ও বন্দুক হামলায় প্রায় ৫০ জন নিহত ও দুই শতাধিক আহত হয়েছে। সরকারি কর্মকর্তারা মঙ্গলবার এ কথা জানায়। এ দুটি হামলার মধ্যে তালেবানরা এ দায় স্বীকার করেছে। এ হামলার ঘটনাটি ঘটেছে আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় গারদেজনগরীতে। এখানে তালেবানরা পুলিশের ওপর একটি সমন্বিত হামলা চালায়। অপর হামলাটি ঘটে পার্শ্ববর্তী গজনী প্রদেশে। এখানে মঙ্গলবার সংঘটিত হামলায় ১৫ নিরাপত্তা কর্মকর্তা নিহত ও ১২ জন আহত হয়েছে।

গারদেজের সহকারি স্বাস্থ্য পরিচালক শির মোহাম্মদ করিমি বলেন, হতাহতে হাসপাতাল ভরে গেছে। আমরা লোকজনদের রক্ত দেয়ার আহবান জানাচ্ছি। এএফপি’র একজন আলোকচিত্র সাংবাদিক বলেন, আহত নারী, শিশু ও পুলিশ সদস্যদের সেবা দিতে ডাক্তার ও নার্সরা ছুটে গেছেন এবং হাসপাতালের বাইরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রক্ত দেয়ার জন্য লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছে।

তালেবানরা এক টুইট বার্তায় এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশ জানিয়েছে, পাকতিয়া পুলিশ সদর দফতরের পাশে একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কাছে দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়। এরপর বন্দুকধারীরা হামলা শুরু করে। পাকতিয়া স্থানীয় সরকার দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, হামলার শিকার অধিকাংশই বেসামরিক লোকজন। যারা পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়ের জন্য পুলিশ সদর দফতরে এসেছিলেন।কর্মকর্তারা জানান, বন্দুক ও আত্মঘাতী ভেস্ট সজ্জিত পাঁচ জঙ্গীর সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর প্রায় ৫ ঘন্টা বন্দুকযুদ্ধ চলে। পাঁচ জঙ্গি নিহতের মধ্যদিয়ে এ বন্দুকযুদ্ধ শেষ হয়।

অপরদিকে, গজনীর গভর্নরের মুখপাত্র হারেফ নূরী এএফপিকে বলেন, গারদেজ থেকে প্রায় একশ’ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত গজনীতে বিদ্রোহীরা একটি পুলিশ সদর দফতরের পাশে একটি বিস্ফোরক বোঝাই যানবাহনের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পুলিশ সদর দফতরে হামলা চালায়।গজনীর পুলিশ প্রধান মোহাম্মদ জামান বলেন, এ হামলায় কয়েক ডজন তালিবান জঙ্গি নিহত হয়। বাসস

ফেসবুক মন্তব্য
xxx