দেশসেরা ফ্যাশন ডিজাইনার হতে চান তানিয়া।

প্রিয়মুখ ডেস্ক ::: ফ্যাশনে নিজেকে যেমনি রাঙ্গাতে পছন্দ করেন তেমনি ফ্যাশন জগতটাকে এগিয়ে নিতে চান তানি। ধ্যানজ্ঞানটা তাই উজার করছেন ফ্যাশন ডিজাইনে নতুনত্ব দিতে। সেই অন্বেষে ছুটে চলতেই ভালোবাসেন তিনি। তাই পেশাকেও বেছে নিয়েছেন ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে। খুলনার মেয়ে তানিয়া সুলতানা তানির পড়াশুনার পাঠ চুকিয়েছেন সিদ্ধেশ্বরী গার্লস স্কুল ও শান্তা মারিয়াম ইউনিভার্সিটি থেকে। পরিবারের সবাই যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করলেও নিজের কাজকে ভালবেসে দেশেই আছেন ফ্যাশনে নতুন কিছু সৃষ্টির লক্ষে। তাই তিনি স্বপ্ন দেখেন দেশসেরা একজন বড় ফ্যাশন ডিজাইনার হওয়ার। নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন সে লক্ষেই। অনলাইনেও আছেন fashion & creative পেইজের মাধ্যমে।

এক পুত্র সন্তানের জননী তানিয়া ২০০৮ সালে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার তৌফিক অমর (অালমগীর) এর গলায় মালা পড়িয়েছেন। সংসার এবং নিজের কাজ সবই সমানভাবে গুছিয়ে নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন নিজের অভিষ্ট লক্ষে। বাঙালীর প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের দিনেই তানিয়ার জন্ম। তাই উৎসব যেন সারাক্ষণই মনে প্রাণে লেগে থাকে তার। প্রকৃতিকেও ভালবাসেন প্রচণ্ড রকমের। প্রকৃতির সৌন্দর্যের মাঝে নিজেকে মিশিয়ে দেওয়াও তার কাছে নেশার মতো। তাই অবসর পেলেই দেশ কিংবা দেশের বাইরে ক্যামেরা হাতে বেরিয়ে পড়েন। প্রকৃতির অপরূপ নান্দনিক পরিবেশের ছবি তুলতে অনেক ভালোলাগে তার, সেই সাথে প্রকৃতির সাথে নিজেও ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে যেন তার জুড়ি নেই। দেশের পাশাপাশি সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, ভারত এবং হিমালয় কন্যা নেপালের সৌন্দর্যের টানে ছুটেছেন বহুবার, মিতালী গড়েছেন প্রকৃতির সাথে। মেষ রাশির এ জাতিকা সাদাসিধে জীবনযাপন করতেই পছন্দ করেন, তবে খুব বেশি অপছন্দ করেন মিথ্যেবাদীদের। চার ভাইবোনের সবার ছোট তানিয়া সুলতানা ভবিষ্যৎতে অালো ছড়াতে চান ফ্যাশন ডিজাইনেই।

তাই তার স্বপ্নের সবটুকু জায়গাজুড়ে দেশের বড় ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে নিজেকে দেখা, কাজও করছেন ক্লান্তিহীন ভালোলাগায়।

ফ্যাশন জগতে তানিয়ার এ পথচলা বৈচিত্র্যতায় আরো একধাপ এগিয়ে চলুক সেই শুভ কামনা।

 

সম্পাদক, প্রিয়মুখ।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম/১৫অক্টোবর২০১৭

 

Facebook Comments