প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণসংবর্ধনা প্রদান।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: লন্ডন থেকে দেশে ফেরার পর প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে বিমানবন্দর থেকে গণভবন পর্যন্ত রাস্তার দু’পাশে দাঁড়িয়ে গণসংবর্ধনা দিয়েছে আওয়ামী লীগসহ সর্বস্তরের জনগণ।

আজ শনিবার সকাল থেকেই আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এবং সর্বস্তরের জনগণ বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন পর্যন্ত রাস্তার দু’পাশে ফুলের তোড়া, বিভিন্ন রং বেরংয়ের ব্যানার, ফ্যস্টুন নিয়ে দাড়িয়ে থেকে তাঁকে এই সংবর্ধনা জানান। সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি অবতরণ করে। সেখানে তাঁকে সংবর্ধনা জানানোর আয়োজন করা হয়। সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তাকে বহনকারী গাড়ি বহরটি গণভবনের উদ্দেশে রওনা দেয়।

এসময় রাস্তার দু’পাশে দাঁড়ানো হাজার হাজার মানুষ স্লোগান দিয়ে তাকে অভিবাদন জানান। এ সময়ে প্রধানমন্ত্রী হাত নেড়ে অভিবাদনের জবাব দেন।রাস্তার দুইপাশে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ বাদ্য ও মাইকে গান বাজিয়ে, স্লোগান দিয়ে শেখ হাসিনাকে অভিবাদন জানান। শেখ হাসিনা ও পুরোরাস্তায় হাত নেড়ে অভিবাদন গ্রহণ করেন। এসময়মাইকে দেশাত্মবোধক গান বাজছিল।

পথে পথে সংবর্ধনা নিতে নিতে সকাল ১০টা ৫৮ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী গণভবনে প্রবেশ করেন।রোহিঙ্গাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর মানবিক ভূমিকার জন্য ব্রিটিশ পত্র-পত্রিকা তাঁকে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ অর্থ্যাৎ ‘মানবতার মা’ আখ্যায়িত করেছে। সংযুক্ত আরব আমীরাতের (ইউএই) সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক (খালিজ টাইমস) রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মানবিক আবেদনের জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উচ্ছ্বসিত প্রসংসা করে তাঁকে প্রাচ্যের নতুন তারকা হিসাবে অভিহিত করেছে।

এছাড়াও শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশনে রোহিঙ্গাদের রক্ষা ওতাদের নিরাপদে নিজ দেশে ফেরত নিতে জাতিসংঘেযে ৫ দফা প্রস্তাব পেশ করেছেন তা বিশ্ব নেতৃবৃন্দের কাছে ব্যাপক গ্রহণ যোগ্যতা পায়। এসব কারণে আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। বাসস

Facebook Comments