কাশফিয়া আঁখির কবিতা “তোমায় দেখিনা গো”

তোমায় দেখিনা গো
কাশফিয়া আঁখি

মাঝ দুপুর
সোনার নূপুর
কাঁদে একলা পরে,
খুকি ঘুমায়
মাটির মায়ায়
দক্ষিণ ঝোপের ধারে।
পাকা বুড়ি
কথার ঝুড়ি
থেমে গেছে আজ সব,
পুতুল খেলা
রঙের মেলা
নিশ্চুপ কলরব।
মায়ের আঁচল
চোখের কাজল
লুটায় ধূলোর বুকে,
নিদারুণ ব্যথা
মুখের কথা
চাপা পড়েছে শোকে।
ছোট্ট জুতা
চুলের ফিতা
সবই আছে পরে আজ,
নেই সে আর
সব জুড়ে যার
আগাগোড়া ছিলো রাজ।
কঠিন শোক
বাবার মুখ
উদাস হয়ে ভাবে,
আমার আঁখি
ভোরের পাখি
আসবি আবার কবে?
শিশির মেখে
শিউলি শাখে
হাসো কি ফুলে ফুলে,
তোমার হাসি
কৃষ্ণের বাঁশি
বাতাস উঠে দুলে।
এ জনমে
কোন সে ক্ষণে
আবার দেখবো তোরে,
প্রতিমা যেমন
মুখটা তেমন
মনেপড়ে বারে বারে।
মেঘ করে
বৃষ্টি ঝরে
তুমি কি ভিজছো মাগো!
দুয়ার বন্ধ
আমি যে অন্ধ
তোমায় দেখিনা গো!!

Facebook Comments