মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে কয়েক দিনের সহিংসতায় প্রায় ৮০০ রোহিঙ্গা নিহত : অাল জাজিরা নিউজ

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: মায়ানমার এর সরকারি বাহিনীর নৃশংসতায় আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাখাইন রাজ্য। নিরাপত্তা বাহিনীর হামলা থেকে রেহাই পাচ্ছে না নারী শিশুরা কেউ। এই কয়েক দিনের সহিংসতায়  ৮০০’ রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে বলে সোমবার জানিয়েছে আল জাজিরা টেলিভিশন।

চলমান সংঘাতের জন্য রাখাইন অঞ্চল থেকে বৌদ্ধসহ বিভিন্ন অমুসলিম গোষ্ঠীর কয়েক হাজার লোককে সরিয়ে নিয়েছে দেশটির সরকার।

মিয়ানমারের পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের নির্বিচার গুলি বর্ষণ, ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়াসহ বিভিন্ন নির্যাতনের শিকার হয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে শত শত রোহিঙ্গা মুসলমান। নারী-পুরুষের পাশাপাশি ছোট্ট শিশুরাও সহিংসতা থেকে রেহাই পাচ্ছে না বলে স্থানীয়দের বরাতে জানিয়েছে আল জাজিরা। সরকারি তথ্যমতে সাম্প্রতিক সংঘাতে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যসহ শতাধিক মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেলেও, প্রকৃত সংখ্যা এর কয়েকগুণ বলে দাবি করেছে স্থানীয়রা। এমন পরিস্থিতে জীবন বাঁচাতে দিগ্বিদিক পালিয়ে বেড়াচ্ছে রোহিঙ্গারা।

রোহিঙ্গারা বলেন, ‘আমাদের গ্রামে যুদ্ধ পরিস্থিতি চলছে। কয়েকদিন পরপরই সেখানে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী। আমরা নিরূপায়। আমাদের যাওয়ার কোনো জায়গা নেই।

স্থানীয়দের বরাতে আল-জাজিরা জানায়, রাখাইনের মংডু, বুথিডং ও রাথিডং এলাকায় সন্ত্রাসবাদে জড়িত থাকার অভিযোগে, ৮ লাখ বাসিন্দাকে বন্দি করে রেখেছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী। কারফিউ জারি রয়েছে সারা দিন। স্থানীয়রা বলছে, জরুরি প্রয়োজনেও তাদের নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে যেতে দেয়া হচ্ছে না।

এর আগে গত বছর অক্টোবরেও রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর রোহিঙ্গা বিরোধী অভিযানে শতাধিক মানুষ নিহত হয়। বাংলাদেশে পালিয়ে আসে ওই অঞ্চলের প্রায় ৮৭ হাজার বাসিন্দা।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx