ভারত-নেপালে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২০০ জনে দাঁড়িয়েছে।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::: ভারী বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় ভারতে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। গৃহহীন হয়ে পড়েছে লাখ লাখ মানুষ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আসামের অন্তত তিন হাজার গ্রাম তলিয়ে গেছে। বন্যায় ভারতে মৃতের সংখ্যা আশিজন। এদিকে, নেপালে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২০ জনে।

ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে দক্ষিণ এশিয়া। গত কয়েকদিন ধরে ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের কারণে, ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি বাড়তে থাকায় ভারতের আসামে বন্যা পরিস্থিতির দিন দিন অবনতি হচ্ছে। একই অবস্থা পশ্চিমবঙ্গ ও বিহারেও। এই ৩ রাজ্যে গত ৫ দিনে প্রায় ১শ’ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।

বন্যায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত আসামের ৩ হাজার গ্রাম তলিয়ে গেছে বলে জানিয়েছে রাজ্যের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ। বিহারেও বহু ঘরবাড়ি ও হাজার হাজার হেক্টর ফসলি জমি ডুবে গেছে। এ অবস্থায় গৃহহীন হয়ে পড়া লাখ লাখ মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে ঠাই নিলেও প্রয়োজনীয় সহায়তা না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন অনেকে।

কয়েকদিনের টানা বন্যায় বিহার, উত্তর প্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও আসামের রাস্তাঘাট প্লাবিত হওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। ঘর-বাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় অচল হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। বন্যার্তদের উদ্ধারে কাজ করে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা।

বিভিন্ন লাকায় বৈরী আবহাওয়ার কারণে বেশ কয়েকদিন ধরে বন্ধ রয়েছে পূর্ব ও উত্তরাঞ্চলের রেল রেল যোগাযোগ। এ অবস্থায় প্রায় ৩শ’ ত্রাণ সরবরাহ কেন্দ্র খোলার পাশাপাশি বন্যার্তদের সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নিতিশ কুমার।

এদিকে, নেপালের দক্ষিণাঞ্চলে বন্যার প্রভাবে বেড়েই বলেছে মৃতের সংখ্যা। অব্যাহত বন্যা ও ভূমিধসে দেশটিতে এ পর্যন্ত ১শ’ ২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত সাপতারি জেলায় নিখোঁজ রয়েছে প্রায় ৪০ জন।

সরকারের পক্ষ থেকে দুর্গতদের সহযোগিতা ও উদ্ধার অভিযানে কথা জানানো হলেও, কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। এর মধ্যেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় নেপালকে ১০ লাখ ডলার সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে চীন।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx