টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিবেদিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৫ মিনিটে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিবেদিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে তিনি এ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শ্বেতশুভ্র কালো কারুকার্য শাড়ি পরিহিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোকার্তচিত্তে বেদিমূলে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। বিউগলে বেজে ওঠে শোকার্ত সুরের মূর্ছনা। বঙ্গবন্ধুর মাজার প্রাঙ্গণে সৃষ্টি হয় শোকাবহ পরিবেশ। এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর একটি সুসজ্জিত দল প্রধানমন্ত্রীকে অনার গার্ড প্রদর্শন করে। রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদর্শন করা হয় জাতির পিতার প্রতি। এরপর অশ্রুসজল প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে ফাতেহা পাঠ করেন এবং পিতা বঙ্গবন্ধু ও মাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ ১৫ আগস্টে নিহতদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করেন। এরপর দলীয় নেতৃবৃন্দ সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা দলের পক্ষে জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন।

এ সময় বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা ছাড়াও আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম ও কাজী জাফরউল্যাহ, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু ও এফবিসিসিআই’র সাবেক সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমদ, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, জন-প্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোর্শ্রাফ হোসেন, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক, বাংলাদেশ রেড-ক্রিসেন্ট সোসাইটির সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর চাচা শেখ কবির হোসেন, সাবেক চীফ হুইপ আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, সাবেক মন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খান, এমপি, শেখ হেলাল উদ্দিন, এমপি, পাট ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী মীর্জা আজম, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট তারানা হালিম, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ফ.ম. বাহাউদ্দীন নাছিম এমপি, আহম্মদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক ও আব্দুর রহমান এমপি, দফতর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক শেখ মোহম্মদ আব্দুল্লাহ, শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এমপি, নূর এ আলম চৌধুরী (লিটন), বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান এমপি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী এমপি, রোকসান ইয়াসমিন ছুটি এমপি, উম্মে রাজিয়া কাজল এমপি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এস এম কামাল, বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর ড. খোন্দকার মোঃ নাছিরউদ্দিন, এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা মাহাবুবুর রহমান হিরণ, বাবুল আক্তার বাবলা ও ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা বদিউজ্জামান সোহাগ, কাজী এনায়েত, আনোয়ার হোসেন আনু, প্রমুখ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও তিন বাহিনীর প্রধানগণসহ পুলিশের আইজিপি একেএম শহিদুল হক ও ডিআইজি (হেডকোয়ার্টার) বিনয় কৃষ্ণ বালাসহ বহু পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx