বন্যাসহ যেকোনো দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে : ত্রাণমন্ত্রী

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, বন্যাসহ যেকোনো দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।তিনি বলেন, বন্যার্তদের আশ্রয় ও খাদ্য প্রদান, চিকিৎসা ও উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রাখতে বন্যা কবলিত ২০টি জেলায় সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করে বন্যার্ত মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মন্ত্রী সোমবার দুপুরে রাজধানীর মহাখালীতে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে দেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী এ সময় দলমত নির্বিশেষে দেশের সকল রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদেরকে অতীতের ন্যায় বন্যার্ত মানুষের সেবায় ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে এগিয়ে আসার আহবান জানান। বিদেশে বসে যারা বন্যার্ত মানুষের দুর্ভোগ নিয়ে কথা বলছেন তাদেরকে দেশে এসে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা, খাগড়াছড়ি ও রাঙামাটিসহ উত্তরারঞ্চলের ২০ টি জেলার ৩৫৬টি উপজেলায় ৯শ’ ৭৩টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রে ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৫৮৬ জন মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। দেশে এখন পর্যন্ত ৯০টি পয়েন্টের মধ্যে ২৭ টি পয়েন্টেবন্যার পানি বিপদ সীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে মন্ত্রী জানিয়েছেন।

ত্রাণমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বন্যার্তদের পাশে পাশে আছি। বন্যা মোকাবিলা নিয়ে ২০ জেলার সকল সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, পাহাড়ি ঢল এবং অতি বৃষ্টির কারণে দেশের সব নদ-নদীর পানিই বেড়েছে এবার বন্যা মাত্র শুরু হয়েছে। উজান থেকে বন্যার পানি নামার সময় রাজধানী ঢাকাসহ আশ-পাশের আরো ৯টি জেলার নিম্নাঞ্চল ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্যাসহ যেকোন দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি গ্রহণের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। বিদেশ থেকে পর্যান্ত পরিমাণ খাদ্য আমদানি করা হচ্ছে। খাদ্যের কোন সংকট হবে না বলে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ১৪ আগস্ট পর্যন্ত ৩৩ জেলায় ১০ হাজার ৬৩০ মেট্রিকটন চাল ও ৩ কোটি ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত সব জেলায় সাধারণ বরাদ্দ হিসেবে ২০০ মেট্টিন টনচাল বরাদ্দ এবং ৯টি জেলায় ৯টি মোবাইল পানি বিশুদ্ধকরণ প্ল্যান্ট পাঠানো হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বন্যা কবলিত এলাকায় বিভিন্ন কারণে ২০ জন নিহত হয়েছেন। বন্যা কবলিত প্রতিটি জেলায় বিশেষ মেডিকেল টিম কাজ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব গোলাম মোস্তফা ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx