অব্যাহত অভিযানের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে ক্রমেই দুর্বল হয়ে পড়ছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস : যুক্তরাষ্ট্র

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::: সিরিয়ার দামেস্কে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় কয়েক দফা ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে সরকারি বাহিনী। এছাড়া, দেইর আল জোর প্রদেশসহ জর্ডান সীমান্তের আইএস-নিয়ন্ত্রিত বেশ কয়েকটি এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে দেওয়ার দাবি করেছে আসাদ বাহিনী। এসবের মধ্যেই রাক্কার ওল্ড সিটিতে আইএস বিরোধী অগ্রাভিযান অব্যাহত রেখেছে মার্কিন সমর্থিত বিদ্রোহী গ্রুপ সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স-এসডিএফ। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, অব্যাহত অভিযানের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে ক্রমেই দুর্বল হয়ে পড়ছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস।

বৃহস্পতিবার রাজধানী দামেস্কের উপকণ্ঠে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত সবশেষ এলাকাগুলোতে দফায় দফায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় সিরীয় সেনাবাহিনী। অনলাইনে প্রকাশিত ছবিতে, দামেস্কের পূর্বাঞ্চলীয় জোবার এবং আইন তারমা এলাকায় বিমান হামলার পাশাপাশি আর্টিলারি ও গোলাবর্ষণ করতে দেখা যায় সিরীয় সেনাদের।

যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক পর্যবেক্ষণ সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানায়, বিদ্রোহীদের লক্ষ্য করে গেল দু’দিনে অন্তত ২৭টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। এতে ব্যাপক ক্ষতির পাশাপাশি বেশ কয়েকজন হতাহত হয় বলেও জানানো হয়।

অন্যদিকে, রাক্কায় আইএস বিরোধী অগ্রাভিযান অব্যাহত রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত বিদ্রোহী গোষ্ঠী সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স-এসডিএফ। এদিন আইএসের স্নাইপার হামলা ও গাড়িবোমা হামলার মুখে দক্ষিণাঞ্চলের বেশ কয়েকটি এলাকা পুনর্দখলে নেয় তারা। তবে, আইএস জঙ্গিরা ওই এলাকার সাধারণ মানুষদের মানব ঢাল হিসেবে ব্যবহার করায়, অভিযান কিছুটা ধীরগতি পেয়েছে বলে জানায় এসডিএফ।

এরমধ্যেই দেইর আল জোর প্রদেশে সরকারি বাহিনীর তীব্র প্রতিরোধের মুখে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস তাদের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে বলে জানিয়েছে গণমাধ্যম। এছাড়া, জর্ডান সীমান্তে জর্ডান সীমান্তে আইএস নিয়ন্ত্রিত বেশ কয়েকটি এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দাবি করেছে সরকারি বাহিনী।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের অব্যাহত চাপের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়েছে বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরাকের মসুলে মার্কিন সামরিক কর্মকর্তা জানান, আইএস কখনই তাদের আগের অবস্থানে আর ফিরে আসতে পারবে না।

মার্কিন সামরিক কমান্ডার কর্নেল রায়ান ডিলন বলেন, ‘আমরা মধ্যপ্রাচ্যে আইএসের ওপর হামলা অব্যাহত রেখেছি। তাদের অর্থায়ন আমরা বন্ধ করেছি। তারা আগের অবস্থানে নেই। আইএসের ৩০টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করা হয়েছে। আমরা এরইমধ্যে আইএসের একশ’ কোটি মার্কিন ডলার অর্থ জব্দ করেছি। তারা আর বিদেশ থেকে বিদেশি জঙ্গিদের অংশগ্রহণ আমরা বন্ধ করে দিয়েছি।’

এরমধ্যেই সিরিয়া সীমান্তে বেসামরিক নাগরিকদের তুরস্কে প্রবেশ সীমিত করেছে আঙ্কারা। তুর্কি সীমান্তের বেশ কয়েকটি তল্লাশি চৌকি সন্ত্রাসীদের দখলে থাকায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx