মালয়েশিয়াতে অবৈধ বাংলাদেশিদের বৈধ করতে অতিরিক্তি লোকবল পাঠানো হয়েছে বাংলাদেশ হাইকমিশনে।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: মালয়েশিয়াতে অবৈধ বাংলাদেশি শ্রমিক বৈধ করার প্রক্রিয়া সফল করতে অতিরিক্তি লোকবল পাঠানো হয়েছে সেখানকার বাংলাদেশ হাইকমিশনে। ডিসেম্বরের আগেই সব শ্রমিক মেশিন রিডাবল পাসপোর্ট বা এমআরপি পাবেন বলে আশাবাদী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। অন্যদিকে বৈধ হওয়ার ক্ষেত্রে শ্রমিক পুনঃনিয়োগ ফি কমাতে মালয়েশিয়ার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সরকারের আলোচনায় বসার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

শ্রমবাজারের চাহিদা বিবেচনায় নিয়ে অবৈধ শ্রমিকের বৈধ হওয়ার সময়সীমা ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়েছে মালয়েশিয়া সরকার।

গত ৬ মাসে এই সুযোগের আওতায় দেশটিতে বৈধ হওয়ার আবেদন করেছেন প্রায় চার লাখ অবৈধ বাংলাদেশি শ্রমিক। তবে তাদের মধ্যে তিন লাখেরও বেশি শ্রমিকের নেই পাসপোর্ট। এই পাসপোর্ট ছাড়া পুনঃনিয়োগের সুযোগ পাবেন না অবৈধ শ্রমিকেরা।

ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশি সব শ্রমিককে এমআরপি দিতে চাপে রয়েছে কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশন।

মালয়েশিয়ায় বনায়ন ও কৃষি খাতে পুনঃনিয়োগের জন্য অবৈধ শ্রমকিদের গুণতে হবে সর্বোচ্চ ৩৫০০ রিংগিত। আর অন্য খাতে দিতে হবে ৪৭১৫ রিংগিত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই হার বেশিরভাগ শ্রমিকের জন্যই অনেক বেশি। চাকরি নবায়ন ফি দেতে না পেরে অনেকেই বৈধকরণ প্রক্রিয়ায় যেতে উৎসাহী হচ্ছেন না।

নির্ধারিত সময় শেষ হলেই অবৈধ শ্রমিকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তার অভিযান শুরু করবে মালয়েশিয়া সরকার। সেই অভিযানে আইনের আওতায় আনা হবে অবৈধ শ্রমিকের নিয়োগদাতাদেরও।

Facebook Comments