নিউজটি পড়া হয়েছে 122

চালু হলো ব্যতিক্রমী দোকান “সততা ষ্টোর”

সিলনিউজ২৪.কমঃ দোকানে থরে থরে সাজানো খাতা, কলম-পেনসিল, বই ও খাবার-দাবার। কিন্তু নেই কোনো বিক্রেতা। বিদ্যালয়ের ভেতরে অবস্থিত এমন দোকানের ক্রেতা শিক্ষার্থীরাই। সেখানে জিনিস কিনে মূল্যতালিকা দেখে বাক্সে টাকা জমা রাখার নিয়ম। দেশের নানা বিদ্যালয়ে ‘সততা স্টোর’ নামের এ ধরনের দোকান চালু হয়েছে এর আগে। উদ্দেশ্য শিশুকাল থেকে শিক্ষার্থীদের শুদ্ধাচার চর্চায় আগ্রহী করে তোলা। এবার চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার ৩৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব কটিতে একযোগে চালু হলো এমন দোকানিবিহীন দোকান।

গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাঠে সততা স্টোর কার্যক্রম চালুর ঘোষণা দেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। মন্ত্রী বলেন, দেশের কোনো উপজেলার সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ রকম দোকান চালুর ঘটনা এই প্রথম। শিক্ষার্থীদের মধ্যে শুদ্ধাচার আত্মস্থ করানোর অংশ হিসেবেই সততা স্টোর কর্মসূচি চালু হয়েছে। এখানে শিক্ষার্থীদের বিবেকই হবে দোকানদার।

গতকাল সকাল ১০টায় চরলক্ষ্যা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে খোলা হয়েছে দোকানিবিহীন দোকান সততা স্টোর। সেখান থেকে শিক্ষাসামগ্রী ও খাবার কিনছে শিক্ষার্থীরা।

অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী প্রিয়ন্তী দেব এমন দোকান দেখে অবাক। টিফিনের টাকা দিয়ে সে কিনেছে চিপস। প্রিয়ন্তী বিস্ময়ভরা কণ্ঠে বলে, এমন দোকান দেখে খুব ভালো লাগছে। তদারকির কেউ নেই। কিন্তু তবু কেউ দাম পরিশোধ না করে আসছে না। এটাই ভালো লেগেছে সবচেয়ে বেশি।

চরলক্ষ্যা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয় চ্যাটার্জি জানান- গতকাল সততা স্টোর চালুর প্রথম দিনই প্রায় চার হাজার টাকার জিনিস বিক্রি হয়েছে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে খুব ভালো সাড়া জাগিয়েছে এই কর্মসূচি। ভবিষ্যতে সৎ নাগরিক হয়ে উঠতে এই অভিজ্ঞতা কাজে আসবে তাদের।

গতকাল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসেছিলেন প্রশাসনের নানা স্তরের কর্মকর্তারা। উপস্থিত ছিলেন কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আহ‎সান উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ মাসুকুর রহমান সিকদার ও দুর্নীতি দমন কমিশন চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপপরিচালক লুৎফুল কবির।

সততা স্টোর সম্পর্কে কর্ণফুলী উপজেলার ইউএনও মো. আহসান উদ্দিন বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মধ্যে নৈতিকতা, শুদ্ধাচার, সততার চর্চা ছড়িয়ে দিতে এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আমাদের আশা আগামী প্রজন্ম সৎ নাগরিক হয়ে গড়ে উঠবে।’

পটিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষাকর্মকর্তা মোতাহার বিল্লাহ বলেন, কোনো উপজেলার সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একযোগে সততা স্টোর চালুর ঘটনা দেশে এই প্রথম। কর্ণফুলী উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ৩৪টি বিদ্যালয়ে এমন দোকান চালু হলো। এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে শুদ্ধাচারের চর্চা বাড়বে।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx