নিউজটি পড়া হয়েছে 83

মৌলভীবাজারে বনবিভাগ কর্মীদের ওপর হামলা, আহত ৮

সিলনিউজ২৪.কমঃ  মৌলভীবাজারের গুমরা গ্রামের রিজার্ভ ফরেস্ট এলাকার লাউরআগা এলাকায় সামাজিক বনায়নের উপকারভোগীদের সাথে মতবিনিময়ের সময় বনভূমির জায়গা দখলকারীদের হামলায় বনভিাগের পাঁচজনসহ আট জন আহত হয়েছেন। এ সময় বনরক্ষীরা চার রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে।

২৯ জুলাই শনিবার দুপুরে মতবিনিময় সভার ভিডিও ধারণ করতে একটি ছেলে বাধা দিলে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মৌলভীবাজার সদর উপজেলার গুমরা গ্রামের লাউরআগাতে রিজার্ভ ফরেস্ট এলাকায় সামাজিক বনায়নের উপকারভোগীদের সাথে মতবিনিময় সভা করছিলেন স্থানীয় বনবিভাগ কর্তৃপক্ষ। এ সময় একটি ছেলে মোবাইল ফোনে তা ভিডিও ধারণ করতে থাকলে বনবিভাগের লোকজন বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় আশিক মিয়া, তার ছেলে ও ভাতিজারা বনবিভাগের লোকজনের ওপর হামলা করে। ভাঙচুর করা হয় একটি জিপ ও মোটরসাইকেল। এ সময় বনবিভাগের রক্ষীরা আত্মরক্ষার্থে ৪ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

হামলায় আহত হন বন প্রহরী আনোয়ার হোসেন (৪০), সুব্রত সরকার (২৯), শেখ শাহরিয়ার শান্ত (২৩), বাগান মালিক আলী হায়দার (২৫) ও মুজিবুর রহমান (২৬)। স্থানীয়দের মধ্যে আশিক মিয়া, মকছুদা বেগম ও রেজিয়া বেগম আহত হন। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আটক করা রুমেল মিয়া ও রুম্মান মিয়া।

বনবিভাগ সদর উপজেলা বিটের সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান বলেন, বনভূমি দখলকারীরা বনরক্ষীর একটি অস্ত্র ছিনিয়ে নিলে অপর এক রক্ষী আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোড়ে। পরে মডেল থানা পুলিশ অস্ত্র উদ্ধার করে।

স্থানীয় মোস্তফাপুর ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম তাজ জানান, বনভূমি জবর দখলকারীরা উদ্ধার অভিযান ঠেকাতে কৌশল হিসেবে পরিবারের নারী সদস্যদের দিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ওসি সোহেল আহমদ জানান, পুলিশের উপস্থিতিতে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির অবসান হয়।

এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয় বলেও ওসি জানান।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার রেঞ্জ অফিসার ইমাম উদ্দিন, সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান, বিট অফিসার মুনাইম হোসেন, বন প্রহরীসহ দুই বাগান মালিক।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx