বিএনপি নেতারা শুধু হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে গিয়ে ফটোসেশন করে: ওবায়দুল কাদের

সিলনিউজ২৪.কম: বিএনপি নেতারা শুধু হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে গিয়ে ফটোসেশন করে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মঙ্গলবার (৯ মে) দুপুরে মৌলভীবাজার জেলার হাকালুকি অংশের বড়লেখা ও জুড়ীতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের সময় স্থানীয় বিনোদ বিহারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের আসল ভিশনের বিরুদ্ধে পাল্টা নকল ভিশন দাঁড় করিয়ে বিএনপি নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার অপকৌশল করছে। বিএনপি নেতারা শুধু হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে গিয়ে ফটোসেশন করে। আওয়ামী লীগ মানুষকে সহযোগিতা করছে।

তিনি বলেন, আমি এখানে লাল গোলাপ শুভেচ্ছা নিতে আসিনি। হাকালুকি হাওরপাড়ের ফসল হারানো মানুষের পাশে দাঁড়াতে এসেছি। যত দিন নতুন ফসল কৃষকের ঘরে উঠবে না, ততদিন সাহায্য অব্যাহত থাকবে। হাওরপাড়ের মানুষের জন্য ৬শ নয় ৬ হাজার ভিজিএফ কার্ড বরাদ্দ করা হবে।

স্থানীয় আ’লীগ নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, এই সহযোগিতার ধারা অক্ষুণ্ন রাখতে তাদের সব সময় কাছে পাবেন। অন্যথায় তাদের খবর আছে।

ত্রাণ বিতরণ পূর্ব মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন অকিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আশরাফুর রহমান। ইউপি চেয়ারম্যান শ্রীকান্ত দাসের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সাংসদ হুইপ শাহাব উদ্দিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ জালাল, কেন্দ্রীয় আ’লীগ সদস্য অধ্যাপক রফিকুর রহমান, জেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ, মৌলভীবাজার পৌর মেয়র ফজলুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান গুলশানা আরা বেগম, কমলগঞ্জ উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মোসাদ্দেক আহমদ মানিক প্রমুখ।

সেতুমন্ত্রী তার বক্তৃতায় বলেন, হাওরের উন্নয়নে সরকার সব কিছু করবে। অন্যদিকে হাওরাঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থানের ব্যবস্থা করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশনকে জনগণ মেনে নিয়েছে। বিএনপি সরকারে নেই, তাদের ভিশন বাস্তবায়ন করবে কিভাবে?

সেতুমন্ত্রী সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নে বলেন, বিএনপি দেশব্যাপি কিসের অভিযান করবে? তারা নিজেরা নিজেকে ঠেকাচ্ছে। ৩শ’ আসনে ৯শ’ প্রার্থী দিয়ে জেলায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে জেলায় মারামারি করছে। আর তাদের সভা পণ্ড হচ্ছে দোষ দিচ্ছে পুলিশের ওপর।  আওয়ামী লীগে ছোটখাট সমস্যা থাকলেও এ ধরনের নজির নেই।

এদিকে মন্ত্রী জুড়ীর অনুষ্ঠান শেষ করে বড়লেখা উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়নের হাকালুকি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে যোগ দেন। এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম আব্দুল্লাহ আল মামুন। সেখানে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। হাওরের মৌলভীবাজার অংশের জুড়ী ও বড়লেখার ৬শ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ২০ কেজি চাল ও নগদ ৫শ টাকা করে বিতরণ করা হয়।

Facebook Comments