ভারতের হিমাচল প্রদেশের শিমলায় যাত্রীবাহী বাস নদীতে পড়ে ৪৪ জন নিহত হয়েছেন।

সিলনিউজ২৪.কমঃ ভারতের হিমাচল প্রদেশের শিমলায় যাত্রীবাহী বাস নদীতে পড়ে ৪৪ জন নিহত হয়েছেন। নিহত মধ্যে ১০জন নারী, তিনটি শিশু ও ৩১ জন পুরুষ রয়েছেন।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, আজ বুধবার শিমলা থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে চোপাল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রতিবেদনে বলা হয় ৪৬ জন যাত্রী নিয়ে বাসটি উত্তরখাণ্ড থেকে শিমলার তিউনিতে যাচ্ছিল। পাহাড়ি রাস্তায় চোপাল এলাকায় পৌঁছালে বাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। একপর্যায়ে বাসটি পাহাড়ি রাস্তা থেকে গড়িয়ে ২৫০ মিটার নিচে টোনস নদীতে পড়ে যায়।

শিমলার পুলিশ সুপার ডি ডব্লিউ নেগি বলেন, খবর পেয়ে উদ্ধারকর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে প্রথমে ৪০ জনের লাশ উদ্ধার করেন। পরে নদীতে আরও দুটি লাশ ভাসতে দেখা যায়। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে অন্তত ১২ জন হিমাচল প্রদেশের।

শিমলা জেলা প্রশাসক রোহান চান্দ ঠাকুর বলেন, বাসটিতে মোট ৪৬ জন যাত্রী ছিলেন। এঁদের মধ্যে ৪২ জনই নিহত হয়েছেন। বাসচালকের সহকারীসহ দুজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

অতিরিক্ত মুখ্য সচিব (দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা) তরুণ শ্রীধর বলেন, ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই সাব-ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে উদ্ধার ও সাহায্য তৎপরতা শুরু হয়েছে। স্থানীয় লোকজন, পুলিশ ও সরকারি চিকিৎসক দলও সহায়তা করছে। দুর্ঘটনার সঠিক কারণ এখনো জানা যায়নি। উত্তরাখণ্ড সরকারও ফোনে আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসাসেবা দেওয়ার কথা বলেছেন।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বীরভদ্র সিং আজ দিল্লিতে আছেন। সেখান থেকেই তিনি আহত চিকিৎসাসেবা ও নিহত ব্যক্তিদের স্বজনদের সাহায্য দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

Facebook Comments