নিষিদ্ধ হচ্ছে নব্য জেএমবিসহ বারোটি সংগঠন।

সিলনিউজ২৪.কমঃ নব্য জেএমবিসহ বারোটি সংগঠনকে নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে সরকার। সংগঠনগুলোকে নিষিদ্ধ করতে সুপারিশ করেছে পুলিশ সদর দপ্তর, যা এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করেছে। গত বছরের জুলাই মাসে গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালিয়ে লাইমলাইটে আসে নব্য জেএমবি। এরপর থেকে সংগঠনের সদস্যরা ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একের পর এক হামলা চালিয়ে আসছে।

নব্য জেএমবি ছাড়া বাকি এগারোটি সংগঠন গোপনে (আন্ডারগ্রাউন্ডে) সক্রিয় আছে। তাদের নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় আছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো। এ পর্যন্ত সাতটি জঙ্গি সংগঠন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সম্প্রতি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘দেশ থেকে জঙ্গিমুক্ত করতে আমরা নানা উদ্যোগ নিয়েছি। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি সংগঠন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নব্য জেএমবিসহ আরো কয়েকটি সংগঠন নিষিদ্ধ করার প্রক্রিয়া চলছে। বিশেষ করে নব্য জেএমবিকে দ্রুত নিষিদ্ধ করা হবে বলে আশা করছি। ’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে কোনো আইএস ছিল না। একটি মহল আইএস আইএস বলে মুখে ফেনা তুলে ফেলছে। আমাদের সরকার জঙ্গিদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখাচ্ছে। যারা জঙ্গিদের লালনপালনের পাশাপাশি উসকে দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ’

যে সংগঠনগুলো নিষিদ্ধ হচ্ছে সেগুলো হলো- নব্য জেএমবি, তৌহিদী জনতা, জুমাদআতুল আল সাদাত, তামিরউদ্দীন দ্বীন বাংলাদেশ, আল খিদমত, হিজবুল মাহদি, হিজবুল্লাহ ইসলামী সমাজ, দাওয়াতি কাফেলা, শাহাদত-ই-নবুয়ত, জামাত-আস-সাদাত,  জামিউতুল ফালাহ ও  ইসলামিক সলিডারিটি ফ্রন্ট।

Facebook Comments