হঠাৎ ভিজে যাচ্ছে ঘরের মেঝ,চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই

  • হঠাৎ ভিজে যাচ্ছে ঘরের মেঝে, জমছে পানিও!
    হঠাৎ করেই ঘরের মেঝে ভিজে উঠছে। মেঝেতে জমছে বিন্দু বিন্দু পানি। দেখে মনে হবে যেন এই মাত্র পানি ফেলা হয়েছে ঘরের মেঝে পরিস্কারের উদ্দেশ্যে।
    কিন্তু বিষয়টি মোটেও এমন নয়। মূলত ভ্যাপসা গরমে স্যাঁতস্যাঁতে এমন অবস্থা হয়েছে সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন জেলার বাসা-বাড়ির ঘরের মেঝের।
    এ নিয়ে উৎকন্ঠিত হওয়ার কিছু নেই। কেউ বলছেন, এ অবস্থা বড় ধরনের ভূমিকম্পের পূর্বাভাস। আবার কারো কারো ভাষ্য, জলবায়ু পরিবর্তনের ভয়ঙ্কর রূপ।
    চৈত্রে আকাশে কালো মেঘের ঘনঘটা আর দিনভর বৃষ্টির পর শুরু হয়েছে তীব্র তাপদাহ। অসহ্য গরমে সড়ক, মাঠ বা প্রান্তর যেমন খাঁ খাঁ করছে তেমনি ঘরের মেঝের ভিজে ওঠা, পানি জমা আবহাওয়া পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবের লক্ষণ।
    জানা যায়,তাপদাহ শুরু হওয়ার পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। এতে ঘরে-বাইরে চলছে চরম অস্বস্তিকর পরিবেশ।
    তাপদাহে মাথার তালু যেমনি গরম হচ্ছে ঠিক তেমনি ঘরের মেঝেও ভিজে স্যাঁতস্যাঁতে হয়ে পড়ছে।
    সিলেটের নূরাণী বনকলাপাড়াসহ শহরের অনেক বাসায় ভ্যাপসা গরমে ঘরে-বাইরে কান্ত-কাতর হয়ে পড়ছেন মানুষজন। সামান্য কাজ করেই মানুষজন হাঁপিয়ে উঠছেন।
    পাশাপাশি ঘরের মেঝে ভিজে চুপচুপ অবস্থা। এতে বড় রকমের ভূমিকম্পের আশঙ্কায় চরম আতঙ্ক তৈরি হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে।
    ঘরের মেঝ ভিজে যাওয়ায় উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছেন অনেকেই।বিল্ডিংগুলোর ফ্লোর ঘামছে, অনেক পানি জমছে, কেন এমন হচ্ছে? পরামর্শ চাই..। অনেকে বলছেন বড় ধরনের গজবের আভাস মনে হচ্ছে। আরেকজন বলেছেন-মনে হচ্ছে ভূমিকম্প হতে পারে।
    চৈত্র মাসে এরকম ভারী বৃষ্টি কখনো হয়নি। আসলে বৈশ্বিক জলবায়ুর কারণে সব কিছুই পাল্টে যাচ্ছে।এতে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই।
Facebook Comments