ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (অাইপিএল) এর দশম আসর শুরু হচ্ছে আজ।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) এর দশম আসর শুরু হচ্ছে আজ থেকে। বিশ্বের সবচেয়ে ধনী এ ক্রিকেট লীগে এবারের আসরেও খেলবেন বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান এবং মোস্তাফিজুর রহমান। তবে এবার আসরের শুরু থেকে তাদের খেলা হবেনা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চলমান বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষ করে কলকাতা নাইট রাইডার্সে যোগ দেবেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার ২০১১ সাল থেকে শাহরুখ খানের কলকাতার হয়ে খেলছেন। ২০১২ ও ২০১৪ সালে সাকিবের দল শিরোপা জিতেছে। কেকেআর এর হয়ে এ পর্যন্ত ৪২ ম্যাচে ৩৮১ রান ও ৪৩ উইকেট নিয়েছেন সাকিব।

অন্যদিকে গত আসরে চমক দেখানো কাটার মোস্তাফিজুর রহমানকেও শুরুতে পাচ্ছেনা হায়দারাবাদ। গত মৌসুমে শিরোপা ঘরে তুলে মোস্তাফিজের দল সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। দলের শিরোপা জয়ে বাংলাদেশের এ বোলারের ছিল দারুণ অবদান। ১৬ ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়ে আসরের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কার জেতেন তিনি। এবার তারা মোস্তাফিজকে শুরু থেকেই চাইছিল। কিন্তু শ্রীলঙ্কার সাথে সিরিজ চলায় প্রথম থেকে খেলতে পারছেন না মোস্তাফিজ। তবে হায়দরাবাদের কোচ টম মুডি আশা করেছেন যে, মোস্তাফিজ ৭ এপ্রিল তার দলের সঙ্গে যোগ দিবেন।

আইপিএল এর দশম আসরেও খেলবে গতবারের ৮টি দল। আসরের প্রথম ম্যাচে গতবারের ফাইনালিস্ট সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু মুখোমুখি হবে অাজ।হায়দরাবাদ প্রথমবার ফাইনালে উঠেই শিরোপা জিতেছে। অন্যদিকে রয়্যাল চ্যালেঞ্জারস বেঙ্গালুরু গত ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৬ মোট তিনবার ফাইনালে উঠেও এখনো শিরোপার মুখ দেখেনি। এবার প্রথম ম্যাচে তারা পাচ্ছে না অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে পড়া কাঁধের ইনজুরি থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেননি তিনি। এছাড়া দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্সকেও আজ পাচ্ছে না তারা। তিনি রয়েছেন পিঠের ব্যথায়। এতে বেঙ্গালুরুকে আজ নেতৃত্ব দেবেন অজি ক্রিকেটার শন ওয়াটসন।
অন্যদিকে হায়দরাবাদের নেতৃত্ব দেবেন আগের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার।শুরুতেই দুই অজি অধিনায়কের লড়াই হবে।

এছাড়া এবার নজর থাকবে প্রথমবার আইপিএলে দল পাওয়া দুই আফগান খেলোয়াড় মোহাম্মদ নবী ও রশিদ খানের দিকে। নবীকে ৩০ লাখ রুপি ও রশিদ খানকে ৪ কোটি রুপিতে এবার দলে ভিড়িয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। দু’জনই আছেন ফর্মের তুঙ্গে। সম্প্রতি আয়ারল্যান্ডকে সিরিজ হারাতে আফগানিস্তানের হয়ে সবচেয়ে কার্যকর ছিলেন তারা দু’জন।

Facebook Comments